গাড়িতে বসেই অঝরে কাঁদছেন মেহজাবীন, কিন্তু কেন ?

বাবা যেদিন স্ট্রোক করেছিলেন সেদিন কিশোরী নুসরাত সঠিক সময়ে অ্যাম্বুলেন্স জোগাড় করতে পারেনি। অথচ নুসরাতের বাবা রহমান সাহেব অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার ছিলেন। এ ঘটনা নুসরাতের মনে দাগ কে'টে যায়।

তখন নুসরাত মনে মনে অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার হওয়ার সি'দ্ধান্ত নেয়। এরপরই সত্যি সত্যিই একদিন একটি হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভারের চাকরি জুটে যায় নুসরাতের।

এমনই ব্যতিক্রম গল্প নিয়ে তৈরি করা হয় ঈদের নাটক ‘আ্যম্বুলেন্স গার্ল’। এতে অ'ভিনয় করেছেন সময়ের জনপ্রিয় অ'ভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী। পরিচালনা করেছেন অনন্য ইমন।

নির্মাতা ইমন জানান, নুসরাত নিজের দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে সচেতন। প্রতিনিয়ত সে চারপাশের স'ঙ্গে যু'দ্ধ করে যায়। সে মানুষ হিসেবে বেঁচে থাকতে চায়। নাটকটিতে এমনই মানবিক বার্তা তুলে ধ’রার চেষ্টা ছিল।

নাটকটির গল্প রচনা ও চিত্রনাট্য করেছেন জাহান সুলতানা। মেহজাবীন ছাড়াও অ'ভিনয় করেছেন সুদীপ বিশ্বা'স দীপ। নাটকটির জন্য তৈরি হয়েছে একটি বিশেষ গান। যার শিরো'নাম ‘নতুন একটা স্বপ্ন’। রবিউল ইসলাম জীবনের কথায় গানটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন শাহরিয়ার আলম মা'র্সেল। কণ্ঠ দিয়েছেন নুসরাত প্রান্তি।

ঈদের চতুর্থ দিন বুধবার রাত ৮টা থেকে আরটিভিতে নাটকটি প্রচার হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*