পা’কিস্তানে ক্রিকেট ম্যাচে হঠাৎ স’ন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ি গু’লি

এক গো’লাগু'’লির কালো অধ্যায় পা’কিস্তানের ক্রিকেট টেনেছে প্রায় ১০ বছর। ফের স’ন্ত্রাসী হা’মলায় কেঁপে উঠল পা’কিস্তানের ক্রিকেট অ'ঙ্গন। করো’নাভাই’রাসের লকডাউন শিথিল হওয়ার পর খেলাধুলা চালু হলেও, ক্রিকেট মাঠেই স’ন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ি গু'’লি সব যেন আবার ওলটপালট করে দিলো।

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা দলের বাসে স’ন্ত্রাসীদের গু'’লির ধাক্কা এখনো বয়ে চলা পা’কিস্তানে আবারও ক্রিকে’টে আ’ঘা'ত হানল স’ন্ত্রাসীদের গু'’লি। এবার অবশ্য অনেকটা অখ্যাত এক ম্যাচে।

পা’কিস্তানের পত্রিকা দ্য নিউজের প্রতিবেদন, গতকাল বৃহস্পতিবার খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের কোহাট বিভাগের ওরাকজাই জে’লার দ্রাদার মামাজাই অঞ্চলে আমন ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালে স’ন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি গু'’লি করেছে।

এমন স’ন্ত্রাসী হা’মলার মধ্যে তো আর ক্রিকেট চলতে পারে না! ম্যাচটা পণ্ড হয়ে গেছে স্বাভাবিকভাবেই। তবে সৌভাগ্য সবার, 'হতা'হত হওয়ার কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে দ্য নিউজ লিখেছে, ছানায় গ্রাউন্ড নামের মাঠে অনুষ্ঠেয় ফাইনালে অনেক দর্শকই ছিলেন। এর মধ্যে স্থানীয় রাজনৈতিক কর্মীরা ছিলেন, সংবাদকর্মীরা তো ছিলেনই। কিন্তু ম্যাচ শুরু 'হতেই দুঃস্বপ্নের শুরু। মাঠের কাছেই থাকা পাহাড় থেকে স’ন্ত্রাসীরা মাঠের দিকে এলোপাতাড়ি গু'’লি চালাতে থাকে।

গু'’লি শুরু 'হতেই খেলোয়াড়, আম্পায়ার, সংবাদকর্মী, দর্শক—যে যেদিকে পেরেছেন, জীবন বাঁ’চাতে দৌড়াতে শুরু করেন। সৌভাগ্যবশত, পালিয়ে বাঁচতে পেরেছেন সবাই।

কারও গায়ে গু'’লি লাগার খবর এখনো পাওয়া যায়নি। প্রতিবেদনে এক দর্শককে উ'দ্ধৃত করে লেখা, গো’লাগু'’লি এত বেশি হচ্ছিল যে আয়োজকেরা স'ঙ্গে স'ঙ্গেই ম্যাচ বাতিল করে দেন।

ওরাকজাই জে’লার পু’লিশ কর্মক’র্তা নিসার আহমা'দ জানিয়েছেন, ওই পাহাড়ি অঞ্চলে স’ন্ত্রাসীদের আনাগোনার কিছু খবর তাঁদের কানে এসেছিল আগে। পু’লিশ এখন স’ন্ত্রাসী ও অন্যান্য অ’প’রাধীদের বি’রু'দ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*